News & Event

24
Nov 21

ইবি রিপোর্টার্স ইউনিটির জাঁকজমকভাবে ৩য় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান

VIEW
23
Nov 21

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় টিচার্স ইনডেক্স অ্যাপের উদ্বোধন

VIEW
23
Nov 21

বর্ণিল আয়োজনে ৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপিত

VIEW
24
Nov 21

ইবিতে ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ ইউনিটভুক্ত অনুষদের বিভাগসমূহে ভর্তির আবেদনের সময়সীমা ২৮ নভেম্বর হতে ১২ ডিসেম্বর

VIEW
22
Nov 21

বর্ণিল আয়োজনে ৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপিত

VIEW
14
Nov 21

৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে কর্তৃপক্ষের বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ

VIEW
13
Nov 21

ইবিতে বঙ্গবন্ধু ফিজিক্যালি চ্যালেঞ্জড ক্রিকেট টুর্নামেন্টের উদ্বোধন

VIEW
13
Nov 21

ইবির ‘ডি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল উপাচার্যের নিকট হস্তান্তর

VIEW
12
Nov 21

ইবি’র সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ কায়েস উদ্দিনের মৃত্যুতে শোক

VIEW
08
Nov 21

ইবি জনসংযোগ অফিসের নবনিযুক্ত পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত)-কে ফুলেল শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

VIEW

জাতির পিতার নৃশংস হত্যাকাণ্ড এবং জেলহত্যার সূত্র রচিত হয়েছিলো ‘৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের সময় ------------------সিমিন হোসেন রিমি এমপি

গাজীপুর-৪ আসনের সংসদ-সদস্য ও বাংলাদেশের প্রথম প্রধানমন্ত্রী শহীদ তাজউদ্দিন আহমদের কন্যা সিমিন হোসেন রিমি বলেছেন, সপরিবারে জাতির পিতার নৃশংস হত্যাকাণ্ড এবং জেলহত্যার সূত্র রচিত হয়েছিলো ‘৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের সময়। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ যেন সফল হতে না পারে, বাংলাদেশ যেন স্বাধীন, সার্বভৌম দেশ হিসাবে মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে তার জন্য মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে খন্দকার মোশতাকের নেতৃত্বে একটি গোষ্ঠী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলছিলেন। মুক্তিযুদ্ধের সাথে থেকে যারা মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতা করে গেছে তাদের বিচার করা হয়নি। খন্দকার মোশতাক আহমেদ বহাল তবিয়তে রয়ে যান এবং বঙ্গবন্ধু হত্যা ও জেলহত্যার মধ্যদিয়ে ’৭১-এর না-পারার প্রতিশোধ নিতে সক্ষম হন।
জেলহত্যা দিবস উপলক্ষে ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ শিক্ষক ইউনিটের আয়োজনে গতকাল (৪ নভেম্বর) ‘১৯৭৫ পরবর্তী সাম্প্রদায়িক সহিংসতা’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, রাষ্ট্র সবার ধর্মকে নিরাপত্তা দিবে। যে যার ধর্ম ও বিশ্বাস লালন-পালন করবে। রাষ্ট্র এ ব্যাপারে কোন হস্তক্ষেপ করবে না। ধর্মের ভিত্তিতে কোন দল থাকবে না। প্রত্যেকের বিশ্বাস সর্বোচ্চ মর্যাদা পাবে, এমন রাষ্ট্র হবে বাংলাদেশ। সংসদ-সদস্য আরও বলেন, রাজনীতিতে ভালো মানুষের খুব দরকার। নইলে দুর্বত্তরা সেই জায়গা দখল করে সমাজকে নষ্ট করে দিতে পারে। আবেগে যেন তাড়িত না হই। আবেগ হলো স্ফূলিঙ্গ। আমরা স্থায়িত্ব চাই। আমরা এমন একটি সমাজ চাই যে সমাজ আলোকবর্তিকা হবে, স্ফূলিঙ্গের মতো জ¦লে উঠবে না। দেশের প্রতি দায়িত্ববোধ জাগানোর জন্য শিক্ষকদেরকে ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান তিনি।
আলোচনাসভায় মুখ্য আলোচকের বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, জেলবন্দী অবস্থায় এমন নৃশংস হত্যাকাণ্ড পৃথিবীর ইতিহাসে সংঘটিত হয়েছে কিনা সন্দেহ। যাদের উপর নির্ভর করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালি জাতির মুক্তির জন্য অসম্ভব দুঃসাহসী পদক্ষেপ নিয়েছিলেন তাঁদের মধ্যে অন্যতম কালোত্তীর্ণ পুরুষ আমাদের চার জাতীয় নেতা। কারান্তরালে থাকা বঙ্গবন্ধুকে বুকে ধারণ করে দেশি-বিদেশি নানা ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে দূরদর্শী নেতৃত্বের মাধ্যমে জাতীয় চার নেতা মুক্তিযুদ্ধকে পরিচালনা করে গিয়েছেন।
বঙ্গবন্ধু পরিষদ শিক্ষক ইউনিটের সভাপতি অধ্যাপক ড. রুহুল কুদ্দুস মোঃ সালেহ’র সভাপতিত্বে সন্ধ্যা ৭টায় শুরু এ আলোচনাসভায় আলোচকের বক্তব্যে প্রাক্তন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, বঙ্গবন্ধু এমন একটি সংবিধান দিয়ে গিয়েছিলেন, যে সংবিধান ছিল সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির রক্ষাকবচ। কিন্ত পরবর্তীতে সেই সংবিধানকে কলুষিত করা হয়েছে।
আলোচনাসভাটি সঞ্চালনায় ছিলেন বঙ্গবন্ধু পরিষদ শিক্ষক ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মোঃ আবু হেনা মোস্তফা জামাল হ্যাপি। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্তরের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ এ ভার্চুয়াল আলোচনাসভায় অংশগ্রহণ করেন।