News & Event

16
Jan 18

মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর সাথে ইবি'র ভাইস চ্যান্সেলর মহোদয়ের সৌজন্য সাক্ষাত

VIEW
13
Jan 19

ইবি ইংরেজি বিভাগের নতুন সভাপতি ড. সালমা সুলতানা

VIEW
12
Jan 19

ইসলামিক ফাউন্ডেশন ও ইবি প্রতিনিধি পর্যায়ের যৌথসভা

VIEW
07
Jan 19

প্রধানমন্ত্রীসহ নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদেরকে ইবি ভিসি’র অভিনন্দন

VIEW
09
Jan 19

শিক্ষামন্ত্রী ও উপ-মন্ত্রীকে ইবি ভিসি’র অভিনন্দন

VIEW
24
Dec 18

Honourable Vice Chancellor Prof. Dr. H. Rashid Askari attending a meeting of the BdREN Trustee Board at UGC

VIEW
24
Dec 18

ইবির সিন্ডিকেটে নতুন ৪ সদস্য

VIEW
23
Dec 18

শিক্ষাকার্যক্রম শেষে উপাচার্যের নিকট থেকে ইবিতে প্রথম ভর্তিকৃত বিদেশী ছাত্রের প্রশংসাপত্র গ্রহণ

VIEW
22
Dec 18

ইবিতে রবীন্দ্র-নজরুল কলা ভবনের উদ্বোধন;; মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়কে নবজন্ম দান করেছেন -------------------------------------------- ইবি উপাচার্য

VIEW
22
Dec 18

ইবি বাংলা বিভাগে সভাপতির দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠান

VIEW

ইবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন

ইবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন

জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিতকরণ ও কালো পতাকা উত্তোলন, কালোব্যাজ ধারণ, শোকর‌্যালি এবং শহীদ স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন মধ্য দিয়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষ্যে আজ (১৪ ডিসেম্বর) সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে প্রশাসন ভবনের সামনে ও হলসমূহে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিত, কালো পতাকা উত্তোলন এবং কালোব্যাজ ধারণ করা হয়। প্রশাসন ভবনের সামনের চত্বরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে অর্ধনমিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী এবং কালো পতাকা উত্তোলন করেন উপ-উপাচার্য ও জাতীয় দিবসসমূহ উদ্যাপন স্ট্যান্ডিং কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান। ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা ও উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন-২) মোঃ নওয়াব আলী খান [রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ ছুটিতে থাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত] এসময় তাঁদের সাথে ছিলেন। একই সময়ে প্রভোস্টগণ নিজ নিজ হলে অনুরূপভাবে পতাকা উত্তোলন করেন।

সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটে প্রশাসন ভবনের সামনের চত্বর হতে উপাচার্য, উপ-উপাচার্য ও ট্রেজারারের উপস্থিতিতে ডিনবৃন্দ, রেজিস্ট্রারসহ সকল হল, অনুষদ, বিভাগ, সকল পর্যায়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রী, বিভিন্ন সমিতি, পরিষদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, বিভিন্ন ছাত্র ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে এক শোকর‌্যালি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে শহীদ স্মৃতিসৌধে সমবেত হয়।

এরপর শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে শহীদ স্মৃতিসৌধে প্রথম পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী। এসময় তাঁর সাথে ছিলেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা ও উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন-২) মোঃ নওয়াব আলী খান [রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ ছুটিতে থাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত] । এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সমিতি, হল, অনুষদ, বিভাগ, বিভিন্ন পরিষদ, ছাত্র-সংগঠন এবং বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন পর্যায়ক্রমে শহীদ স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন।

শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শেষে এক মিনিট নিরবতা পালন এবং দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়াও গত ১৩ ডিসেম্বর দিবাগত রাতে শহীদ বুদ্ধিজীবী এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাতের উদ্দেশ্যে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে পবিত্র কুরআনখানি ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে ইবি কর্তৃপক্ষের কর্মসূচি
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আগামী ১৬ ডিসেম্বর রবিবার সকাল ৯টা ৩০ মিনিটে প্রশাসন ভবনের সামনের চত্বরে ও হলসমূহে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। বিএনসিসি কর্তৃক প্রদত্ত গার্ড অব অনারসহ জাতীয় পতাকা উত্তোলন করবেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী এবং বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করবেন উপ-উপাচার্য ও জাতীয় দিবসসমূহ উদ্যাপন স্ট্যান্ডিং কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান। ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা ও উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন-২) মোঃ নওয়াব আলী খান [রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ ছুটিতে থাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত] এসময় তাঁদের সাথে থাকবেন। একই সময়ে প্রভোস্টগণ নিজ নিজ হলে অনুরূপভাবে পতাকা উত্তোলন করবেন।
সকাল ৯টা ৪৫মিনিটে প্রশাসন ভবন চত্বর হতে উপাচার্য, উপ-উপাচার্য ও ট্রেজারারের উপস্থিতিতে ডিনবৃন্দ, রেজিস্ট্রারসহ সকল হল, অনুষদ, বিভাগ, সকল পর্যায়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রী, বিভিন্ন সমিতি, পরিষদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, বিভিন্ন ছাত্রসংগঠন এবং বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের সমন্বয়ে এক আনন্দ শোভাযাত্রা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে মুক্তিযুদ্ধের স্মারক ভাস্কর্য ‘মুক্তবাংলা’য় সমবেত হবে।
আনন্দ শোভাযাত্রা শেষে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে ‘মুক্তবাংলা’য় প্রথম পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী। এ সময় তাঁর সাথে থাকবেন উপ-উপাচার্য ড. মোঃ শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা ও উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন-২) মোঃ নওয়াব আলী খান [রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ ছুটিতে থাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত]। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সমিতি, হল, অনুষদ, বিভাগ, বিভিন্ন পরিষদ, ছাত্র-সংগঠন এবং সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন পর্যায়ক্রমে ‘মুক্তবাংলা’য় শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করবেন।
শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন শেষে এক মিনিট নিরবতা পালন এবং দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।
সকাল ১০টা ৩০মিনিটে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয় খেলার মাঠে শিক্ষক বনাম কর্মকর্তা, সহায়ক কর্মচারী বনাম সাধারণ কর্মচারী এবং ছাত্রহলসমূহের মধ্যে প্রীতি ভলিবল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া মহিলা শিক্ষক ও মহিলা কর্মকর্তা এবং মহিলা সহায়ক কর্মচারী ও মহিলা সাধারণ কর্মচারীদের মধ্যে পিলো পাসিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। ছাত্রীহলসমূহের মধ্যে প্রীতি ভলিবল প্রতিযোগিতা জিমনেসিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা উদ্বোধন করবেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান ও ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন-২) মোঃ নওয়াব আলী খান [রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ ছুটিতে থাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত]। প্রতিযোগিতা শেষে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান হবে।

মহান বিজয় দিবসের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য জাতীয় দিবসসমূহ উদ্যাপন স্ট্যান্ডিং কমিটি এবং শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবস ২০১৮ উদ্যাপন উপ-কমিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের অনুরোধ জানিয়েছেন।

গাড়ির সময়সূচি
আগামী ১৬ ডিসেম্বর সকাল ৮টায় কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহ ও শৈলকূপা হতে বাসসমূহ নির্ধারিত রুটে ক্যাম্পাসে আসবে এবং অনুষ্ঠানশেষে ক্যাম্পাস ছেড়ে যাবে।